রেখাকে জোর করে ৫ মিনিট চুম্বন করেন বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

রেখাকে জোর করে ৫ মিনিট চুম্বন করেন বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়

মার্চ ৯, ২০২২ 0 By বিনোদন২৪.কম

ভারতীয় সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেত্রী রেখা। ৪০০ এর বেশি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। রেখার আসল নাম ভানুরেখা যামিনী গণেশন। খুব অল্প বয়সে সিনেমায় কাজ করতে আসেন রেখা।

তার সৌন্দর্য নিয়ে যতটা চর্চা হয়। রেখার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও চর্চার অন্ত নেই। রেখা বাবা ছিলেন প্রযোজক মা ছিলেন দক্ষিণী সিনেমার অভিনেত্রী। তবে তাই বলেই রেখাজীবনে সবটাই যে খুব মসৃণভাবে হয়ছে এমনটা একেবারেই না। কিন্তু সিনে দুনিয়ায় পা রেখে পরিস্থিতিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়াটা ঠিক কতটা সহজ! প্রশ্ন থাকলেও উত্তরটা হয়তো সহজ নয়। হিন্দি ছবিতে কাজ করতে এসে একের পর এক বাঁধা পেতে থাকেন রেখা। মাত্র ১৫ বছর বয়সেই এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হন অভিনেত্রী।

বলিউডে পা রেখে রেখার স্মৃতি কতটা সুন্দ ছিল, কতটা সুন্দর ছিল তার পথ চলার শুরুটা! সেই অভিজ্ঞতার কথা সামনে এসেছিল রেখার (Rekha: The Untold Story) বায়োগ্রাফিতে। সালটা ১৯৬৯ ‘আনজানা সফর’ ছবির শুটিং-এর মাঝেই রেখার ঠোঁটে সপাট চুম্বন করেছিলেন অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়। চোখ বেয়ে সেদিন জল পড়েছিল রেখার। আসলে সেই সময় বিশ্বজিৎ ছিলেন মুম্বাই ইন্ডাস্ট্রির ডাক সাইটে অভিনেতা। একের পর এক ছবির অফার ছিল অভিনেতা বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীর কাছে।

‘আনজানা সফর’ ছবির শুটিং এর সময় বিশ্বজিৎ-এর বয়স ৩০ রেখা তখন ১৫। ছবির পরিচালক রাজা নাওয়াথে অ্যাকশন বলার পরই রেখাকে সপাটে চুম্বন করতে শুরু করেন। টানা পাঁচ মিনিট চলে সেই দৃশ্যর শুট এই পুরো দৃশ্যের শুটিং হওয়ার একদিকে রেখার চোখ বেয়ে জল গড়াতে শুরু করল এদিকে খুশি ছিল গোটা টিম।

রেখা তার বই Rekha: The Untold Story-তে লেখেন, “বম্বের মুম্বাই স্টুডিয়োতে চলছিল আনজানা সফর ছবির শুটিং।ছবির প্রথম শিডউলে ছবির পরিচালক রাজা নাওয়াথে বিশ্বজিৎ মিলে প্ল্যানিং করেন। সেই দিনে আমার ও বিশ্বজিতের রোম্যান্টিক সিন ছিল। শুটিং শুরুর আগেই ওরা পুরো প্ল্যানিং করে নেন।”

রেখা তার বইতে জানান, পরিচালক রাজা নাওয়াথে অ্যাকশন বললেন সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বজিৎ রেখাকে নিজের বাহুডোরে জড়িয়ে ঠোঁটে চুম্বন করতে শুরু করেন। রেখা প্রায় কিছু বুঝেই উঠতে পারছিলেন না। আসলে এই কিসিং সিনটির বিষয়ে আগে কিছু জানানো হয়নি রেখাকে। রেখার কাছে পুরো ঘটনাটাই ছিল আচমকার।

এই বিষয়ে পরে এক সাক্ষাৎকারে অভিনেতা বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানান, এই পুরো প্ল্যাটটা ছিল পরিচালকের। তার সিনেমায় এরকমই একটা দৃশ্যের প্রয়োজন ছিল।