পরীমনি ইস্যুতে যে তথ্য মিললো জায়েদ খানের কাছ থেকে

পরীমনি ইস্যুতে যে তথ্য মিললো জায়েদ খানের কাছ থেকে

জুন ১৪, ২০২১ 0 By বিনোদন২৪.কম

অভিনেত্রী পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে। ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বিষয়টি জানান তিনি নিজেই। খোলা চিঠির মাধ্যমে বিচার চান প্রধানমন্ত্রীর কাছে। পরে সংবাদ সম্মেলন করে ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন এ নায়িকা।

পরীমনি বলেন, একজন সাধারণ মেয়ে হিসেবে আমি সবার দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি। কিন্তু কেউ আমাকে সহযোগিতা করেনি।

পরীর অভিযোগ তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টায় থানায় অভিযোগ নেয়া হয়নি, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিকে জানালেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি তারা।

পরীর ভাষ্য মতে, অভিযোগের তীর শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানের দিকে। কারণ তাকে পুরো ঘটনা বলার পরও নাকি নিশ্চুপ ছিলেন জায়েদ খান!

সোমবার দুপুরে (১৪ জুন) জায়েদ খানের স্বীকার করেছেন পরীমনি বিষয়টি তাকে অবগত করেছিলেন। তবে লিখিত অভিযোগের প্রসঙ্গে এড়িয়ে যান। সেদিন রাতে থানায় নিয়ে যেতে চাইলেও যাননি।

জায়েদ খান বলেন, পরীমনি আমার কাছে এসেছিল বৃহস্পতিবার রাতে। এফডিসিতে শিল্পী সমিতিতে রাতের খাবার শেষে আমি তাকে বাসায় নামিয়ে দিয়ে আসি। আমি তাকে জিজ্ঞেস করেছি তুমি বিচারটা কী চাও? আমরা কী থানায় যাবো? শিল্পী সমিতিতে আমি একাই সব না এখানে আমার সভাপতি ও উপদেষ্টা রয়েছেন। নিয়ম হচ্ছে একটা মিটিং করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সমিতির সবার সিদ্ধান্ত আমি একা কোনো সিদ্ধান্ত দিতে পারি না।

তিনি আরো বলেন, শিল্পী সমিতি কোনো ফৌজদারি আদালত না। আমরা সহকর্মী হিসেবে তার পাশে আছি। সে আমার কাছে এসে বলেছে তোমরা আমার বিচার করতে পারবা না। বেনজির সাহেবের (আইজিপি) সঙ্গে দেখা করার ব্যবস্থা করো। আমি বলেছি আজ বৃহস্পতিবার, শুক্রবার ও শনিবার বন্ধের দিন। আমরা রোববার তার কাছ থেকে সময় নেয়ার চেষ্টা করবো। এর মধ্যে তুমি আমাদের একটা লিখিত দাও।

জায়েদ খান বলেন, গতকাল দুপুর দুইটার সময়ও পরীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আমি তখন তাকে বলেছি তিনি (আইজিপি) রাজশাহীতে। তিনি ফিরলে আমরা সময় নেবো। তোমার মন খারাপ লাগলে তুমি এফডিসিতে চলে এসো। আমরা সবাই তোমার সঙ্গে আছি। এরপর রাতে শুনি সে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছে, রাতে সংবাদ সম্মেলন করেছে। সে দুইটা দিন অপেক্ষো করেনি। তিনি আইজিপি বললেই তো তার দোষ দেয়া যায় না।

শিল্পী সমিতি সব সময় শিল্পীদের স্বার্থরক্ষায় কাজ করে উল্লেখ করে জায়েদ খান বলেন, শিল্পী সমিতি তার পাশে আছে। কিন্তু পরীর অভিযোগ হলো জায়েদ কিছু করোল না কেন। সে তো ব্যক্তি জায়েদের কাছে আসে নাই, এসেছে শিল্পী সমিতির সেক্রেটারির কাছে। সে সভাপতিকে জানিয়েছি, রুবেল ভাইকে (নায়ক রুবেল) জানিয়েছি তারা সবাই বলেছেন, একটা লিখিত অভিযোগ দিতে। তারপর আমরা একটা মিটিং করে আইজিপি মহোদয়ের কাছে যাবো। কিন্তু পরই দুদিন অপেক্ষা করল না।

প্রসঙ্গত, নায়িকা পরীমনিকে ‘ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার’ ঘটনার লিখিত অভিযোগ হাতে নেয়ার পর এবার সেটি মামলায় রূপান্তরিত হয়েছে। মামলায় ব্যবসায়ী নাসির ইউ মাহমুদসহ ২ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও আরও ৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাইনুল ইসলাম।