একজন হার না মানা নায়ক গোবিন্দ

0
15

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখলেও তার চেহারা মোটেই হিরো সুলভ ছিল না। ১৯৮৬ সালে ইলজাম চলচিত্রে নায়ক হিসেবে  অভিষেক তার। শরীর একেবারেই পেশীবহুল তো নয়ই, উপরন্তু নাচের বিশেষ কোনো ব্যাকরণ বা প্রথাগত শিক্ষা জানা নেই, অভিনয়েও যে অমিতাভকে টেক্কা দেবেন এমনও নয়।

সমালোচকরা ভেবেছিলেন এ ছেলের ক্যারিয়ারের মোমবাতি ২-৩টে সিনেমার শেষেই দপ করে নিভে যাবে। কিন্তু সমালোচকদের মুখে ছাই দিয়ে বছরের পর বছর ধরে একটার পর একটা হিট সিনেমা দিতেই থাকেন তিনি। শুধু তাই নয়, তিনি নিজের অনন্য নাচের ভঙ্গিমায় মন্ত্রমুগ্ধ করে রেখেছিলেন আপামর ভারতবাসীকে। তিনি মঞ্চে উঠলে হাততালিতে ফেটে পড়তো প্রেক্ষাগৃহ।

প্রায় ১৬৫টার বেশি সিনেমা করেছেন যিনি, তিনি গোবিন্দ অরুণ আহুজা উর্ফ গোবিন্দ গতরাতে পা রাখলেন ৫৭ বছরের মাইলস্টোনে। নিজের জন্মদিনের প্রাইভেট পার্টিতে তার সিগনেচার ‘গোবিন্দ স্টাইল’ এর নাচের ভিডিও, নেট দুনিয়ায় আসতেই তা ভাইরাল হয়ে যায় মুহূর্তেই।

এখনও তিনিই নাম্বার ওয়ানের মুকুট পরে আছেন আমাদের নস্ট্যালজিয়ার অদৃশ্য নাট্যমঞ্চে। প্রসঙ্গত, ২৫ ডিসেম্বর আম্যাজন প্রাইম এর ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেতে চলেছে বরুণ ধাওয়ান এবং সারা আলী খান অভিনীত ‘কুলি নাম্বার ওয়ান, যা গোবিন্দ অভিনীত পুরোনো ‘কুলি নাম্বার ওয়ান’র রিমেক। নতুন সিনেমাটিতেও একই থাকবে সিনেমার গল্প এবং গান। কিন্তু নাচ? ভক্তজনেদের মতে ‘ম্যায় তো রাস্তে সে যা রাহা থা’ গানে, গোবিন্দ আর কারিশমা কাপুর নিজেদের স্টেপে যেভাবে আসুমদ্রহিমাচল কে কোমর দোলাতে বাধ্য করেছিলেন, তা হয়তো এই প্রজন্মের বরুণ ধাওয়ান বা সারা আলী খান হয়তো পারবেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here