বিবাহবিচ্ছেদের পর যে কারণে সিঙ্গেল শ্রীলেখা

বিবাহবিচ্ছেদের পর যে কারণে সিঙ্গেল শ্রীলেখা

নভেম্বর ২১, ২০২০ 0 By বিনোদন২৪.কম

পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র ১৭ বছর আগের ২০ নভেম্বর সিনেমাটোগ্রাফার শিলাদিত্য মৌলিককে বিয়ে করেছিলেন। তাদের বিচ্ছেদ হয়ে গেলেও দিনটিকে মনে রেখেছেন অভিনেত্রী। গতকাল সকালে প্রাক্তন স্বামী শিলাদিত্য মৌলিকের সঙ্গে বিয়ের দিনের ছবি শেয়ার করেন শ্রীলেখা।

সেখানে এই অভিনেত্রী লেখেন, আজ হতে পারত আমাদের ১৭তম বিবাহবার্ষিকী! হ্যান্ডসাম না আমার প্রাক্তন? তাই তো আর সেভাবে কাউকে মনে ধরল না।

তারকারা যখন বিয়ে, বিচ্ছেদ নিয়ে ঠোঁট চেপে থাকেন, তখন এ রকম স্পর্শকাতর বিষয় নিয়েও প্রায়শই অকপট কথা বলতে দেখা যায় শ্রীলেখা মিত্রকে। প্রাক্তনকে ভুলে যাননি, এটাও জানাতে ভোলেননি শ্রীলেখা।

তিনি বলেন, মনে পড়ছে। মনে করছি। আজকের দিনেই তো ভালোবেসে সাতপাক ঘুরেছিলাম। সবকিছুর পরেও সে আমার মেয়ের বাবা। তাকে ভুলি বা অস্বীকার করি কী করে?

২০১৩ সালে শিলাদিত্য সান্যালের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ হয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রের। পরবর্তী সময়ে শ্রীলেখা আর বিয়ে করে সংসারী হননি। তাঁদের এক সন্তান, ঐশী। মেয়ে মায়ের কাছেই থাকে। তবে বাবার সঙ্গেও নিয়মিত যোগাযোগ আছে। শ্রীলেখার নিজেও সাবেক স্বামীর সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে চলেছেন বলে জানা গেছে তার ফেসবুক মন্তব্যে।

তার দাবি, দুজন ভালো মানুষ হলেও চিরকাল এক ছাদের নিচে না-ই থাকতে পারেন। বন্ধুত্ব রয়েই যায়। তাই শিলাদিত্য-শ্রীলেখার মেয়ে ‘হ্যাপি চাইল্ড’। আমরা একে অন্যের বাড়ি যাই। কথা হয়। শুধু ছাদটুকু শেয়ার করি না।

শিলাদিত্য সান্যালের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর বেশ কয়েক বছর কেটে গেলেও নতুন করে সংসার পাতেননি শ্রীলেখা। এর কারণ হিসাবে এই অভিনেত্রী পশ্চিমবঙ্গের একটি সংবাদমাধ্যমকে জানান, জীবনসঙ্গী পছন্দের ক্ষেত্রে মানসিকতার পাশাপাশি বাহ্যিক রূপের দিকেও জোর দেন তিনি। এ ব্যাপারে তার একটু খুঁতখুঁতে ভাব আছে। তাই এতো বছরে আর কাউকে বেছে নিতে পারেননি তিনি। এখনো তার চোখে সবচেয়ে ‘হ্যান্ডসাম’ তার সাবেক স্বামী।