শুটিংয়ে আট সহকারী নিয়ে গেলেন মিষ্টি জান্নাত

শুটিংয়ে আট সহকারী নিয়ে গেলেন মিষ্টি জান্নাত

অক্টোবর ৭, ২০২০ 0 By বিনোদন২৪.কম

সিনেমা হল খোলার সংবাদে ব্যস্ততা বেড়েছে সিনেমা সংশ্লিষ্ট সবার। গত ২ অক্টোবর ফরিদপুরে শুরু হয়েছে ‘বীরত্ব’ ছবির শুটিং। চলবে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত। ছবিতে প্রধান নায়ক-নায়িকা ইমন ও সালওয়া। ছবিটি পরিচালনা করছেন সাইদুল ইসলাম রানা। এই ছবির প্রযোজকের পরের ছবিতে অভিনয় করতে হলে ‘বীরত্ব’ ছবির আইটেম গানে পারফর্ম করতে হবে। এমন শর্তে রাজি হয়েছেন আলোচিত ও সমালোচিত চিত্রনায়িকা মিষ্টি জান্নাত।

আইটেম গানে অংশ নিতে আট সহকারী নিয়ে শুটিংয়ে হাজির উঠতি এ নায়িকা। একজন নায়িকার সঙ্গে আটজন সহকারী সেটে হাজির হওয়ায় বিব্রত সবাই। যদিও এই নায়িকার ক্যারিয়ারে বলার মতো ছবি নেই। এক দিনের শুটিংয়ের জন্য যদি আট জন সহকারী নিতে হয় তাহলে এ ছবিতে প্রধান নায়িকা হলে কয়জন সহকারী নিতেন? এমন প্রশ্ন কিন্তু থেকে যায়।

করোনাকালে যেখানে শুটিংয়ে লোকসংখ্যা কমিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুটিং করার কথা বলা হয়েছে সেখানে এক দিনের শুটিংয়ে আট জন সহকারী নিয়ে যাওয়ায় বিষয়টি প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে।

আইটেম গানের শুটিং হয়েছে দৌলতদিয়া পতিতা পল্লীতে যেখানে পাঁচ হাজারেরও বেশি লোকসংখ্যা রয়েছে। সেখানে শুটিং ইউনিট নতুন লোকসংখ্যা বাড়ায় স্বাস্থ্যবিধি কতটুকু মানা হয়েছে তা কিন্তু বোঝার বাকি নেই।

কিন্তু আট জন সহকারী নিয়ে কেন হাজির হলেন তিনি? মিষ্টি গণমাধ্যমকে জানান, রাত ৯টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত টানা শুটিং করেছেন।

আট সহকারীর প্রসঙ্গ উঠতেই কিছুটা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন মিষ্টি জান্নাত। তিনি বলেন, অ্যাসিস্ট্যান্ট আর ম্যানেজারের টাকা তো ইউনিট দেয় না, আমিই দিই। তাদের খাবারও শুটিং ইউনিটের বাইরে থেকে আনা হয়েছিল।

তবে তিনি এও বলেন, ঢাকা থেকে অনেক দূর, আম্মুও ছিল না। তাই এত লোক নিয়ে সেখানে যাওয়া। তাছাড়া অন্য সমস্যার কারণে আমার একটু প্রোটেকশনও দরকার হয়। মানুষ আমাকে মাঝে মধ্যে হুমকি দিয়েছিল। পরিবারের সবাই এ জন্য ভয়ে আছেন। ঢাকার বাইরে শুটিং থাকলে তাই ভিআইপি প্রোটেকশন থাকে।

সম্প্রতি সমালোচিত এ নায়িকা একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে হাজির হয়ে জানান, তার বাংলা ছবি ভালো লাগে না। নিজের ছাড়া অন্য কারো ছবিই পছন্দ না। তিনি মনে করেন সে সব ছবির শিল্পীরা তার লেভেলের না। মিষ্টি নিজেকে সর্বোচ্চ লেভেলের দাবি করেন। সব কিছুতে মিষ্টি নিজেকে অনন্যা মনে করেন।