তিন যুগ পর আলীরাজ

0
13

বাংলাদেশ টেলিভিশনে অভিনয়ের মধ্য দিয়েই ডাব্লিউ আনোয়ার নামে আলীরাজের পথচলা শুরু হয়। কিংবদন্তি সিনেমাটোগ্রাফার আনোয়ার হোসেন বুলুর হাত ধরেই বিটিভির নাটকে তার যাত্রা শুরু। দীর্ঘ তিন যুগ পর বিটিভির নাটকে অভিনয় করতে যাচ্ছেন দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা আলীরাজ।

৩৬ বছর পর তিনি বিটিভির অভ্যন্তরে শুটিং করতে যাচ্ছেন জাহিদ হাসানের নির্দেশনায়।নাটতের নাম পিছুটান। নাটকটি রচনা করেছেন জাকির হোসেন উজ্জ্বল, প্রযোজনা করছেন মাহবুবা ফেরদৌস।

দীর্ঘ ৩৬ বছর বিটিভির নাটকে অভিনয় করা প্রসঙ্গে আলীরাজ বলেন, মনে হচ্ছে আমার নিজের বাড়িতে আমি ফিরে যাচ্ছি, নিজের মানুষগুলোর কাছে ফিরে যাচ্ছি। কেমন যেন একটা অনুভূতি কাজ করছে আমার ভেতরে তা আসলে বলে বুঝাতে পারবোনা। প্রতি মুহুর্তেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ছি। ভীষণভাবে আজ বিটিভির সেই ফেলে আসা দিনগুলোর কথা মনে পড়ছে। মনে পড়ছে চলে যাওয়া অনেকের কথা।

নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুর নির্দেশনায় ‘ভাঙনের শব্দ শুনি’ নাটকে আলীরাজ প্রথম অভিনয় করেন। তখন তিনি একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সিরাজগঞ্জের ছেলে আলীরাজ সেখানেই পড়াশোনা শেষ করে ঢাকায় এসে চাকরি করতেন। ‘ভাঙনের শব্দ শুনি’ নাটকের পর আলীরাজ ‘নায়ক’, ‘রুমঝুম’, ‘অক্টোপাস’সহ আরো বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেন।

তবে বরকত উল্লাহ প্রযোজিত ‘ঢাকায় থাকি’ নাটকটিতে মাহমুদ চরিত্রে অভিনয় করে সেই সময় সারা দেশে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলেন আলীরাজ। এই নাটকে তার বিপরীতে ছিলেন তারানা হালিম। এই নাটকেই ইউনিয়ন লিডার চরিত্রে অভিনয় করতেন কিংবদন্তি গীতিকার মোহাম্মদ রফিক উজ্জামান। তিনিই মূলত আলীরাজকে সিনেমা করার প্রস্তাব দেন।

সেই প্রস্তাব লুফে নিয়েছিলেন আলীরাজ। কারণ প্রথমেই তিনি নায়করাজ রাজ্জাকের নির্দেশনায় ‘সৎ ভাই’ সিনেমাতে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছিলেন। নায়করাজই তার নাম রাখেন আলীরাজ।

আলীরাজ অপূর্ব রানা পরিচালিত ‘পুড়ে যায় মন’ এবং মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘জান্নাত’ সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। আলীরাজ অভিনীত কয়েকটি উল্লেখযোগ্য সিনেমা হচ্ছে ‘নিয়ত’,‘ সহযাত্রী’,‘ কুসুমপুরের কদম আলী’,‘ দুর্নাম’,‘ দংশন’,‘ কৈফিয়ত’,‘ সম্মান’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here