জন্মদিনে জেমসের দীর্ঘায়ু কামনা ভক্তদের আয়োজন

0
14

ভক্তদের কাছে ফারুক মাহফুজ আনাম জেমস মানেই তারুণ্যের উন্মাদনা। তার গানের তালে মেতে ওঠে যুবক মন। তার কনসার্টগুলোতে জেগে ওঠে ভালোবাসার উদ্দীপনা। নগরবাউল ভক্তদের কাছে তিনি গুরু। আজ তার ৫৬ তম জন্মদিন।

প্রতি বছরের মতো জেমস নিজে এবারের জন্মদিনেও কোনো আয়োজন করছেন না। তবে বরাবরই ভক্তরা তাকে বিশেষ চমক দেন। এবারো করোনার দোহাই দিয়ে বসে নেই জেমসের সেই পাগল ভক্তরা। জন্মদিনের প্রথম প্রহর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুভেচ্ছায় ভাসাচ্ছেন জেমসকে। কেকও কাটছেন।

এদিকে দেখা গেলো জেমস-ভক্তদের ‘গুরু জেমসের দুষ্টু ছেলের দল’ শিরোনামের একটি ফেসবুক গ্রুপ থেকে অনেকটা সীমিত আকারে পালন করা হচ্ছে জেমসের জন্মদিন। গ্রুপটির পক্ষ থেকে গুরুর জন্মদিনে শুক্রবার বাদ আসর দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

তারা ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের নিরব হোটেলে ভক্তরা কেক কাটেন এবং জেমসের দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া মাহফিল আয়োজন করেন।

‘গুরু জেমসের দুষ্টু ছেলের দল’ গ্রুপটির দশ বছর পূর্ণ হচ্ছে। এ দিনে রক্তদানকারীদের তালিকাও করা হবে বলে গ্রুপটির মডারেটর মোহাম্মদ সিজান রেজা জানায়।

১৯৬৪ সালের ২ অক্টোবর পৃথিবীতে এসেছিলেন জেমস। জেমসের জন্ম নওগাঁয়, তবে তিনি বেড়ে উঠেছেন চট্টগ্রামে। সেখানে থাকা অবস্থায় জেমস ব্যান্ড সংগীতের প্রেমে পড়েন। তিনি রক ব্যান্ড ফিলিংস (বর্তমানে নগর বাউল হিসাবে পরিচিত) এর প্রধান গায়ক, গীতিকার ও গিটারিস্ট, যা তিনি ১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠা করেন।

জেমস ১৯৯০ এর দশকে ফিলিংসের মুখ্যব্যক্তি হিসাবে মূলধারার খ্যাতিতে উঠে এসেছিলেন, যা বিগ থ্রি অফ রক এর মধ্যে অন্যতম, যারা এলআরবি এবং অর্কের পাশাপাশি বাংলাদেশে হার্ড রক সংগীত বিকাশ ও জনপ্রিয় করার জন্য প্রশংসিত। ফিলিংসকে বাংলাদেশের সাইকেডেলিক রক এর প্রবর্তক হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এ ক্ষেত্রেই জেমসকে গুরু বলে সম্বোধন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here