সুশান্তর ঘটনায় সালমান পরিবারকে না জড়ানোর নির্দেশ

0
23

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত ও তার ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের অপমৃত্যু মামলায় সালমান খানের ভাই আরবাজ ও পরিবারের অন্যদের নাম জড়ানো থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। দিল্লির সংবাদকর্মী সাক্ষী ভান্ডারি, আইনজীবী বিভোর আনন্দ এবং একাধিক সোশ্যাল মিডিয়া ইউজারকে খান পরিবারের নাম জড়ানো থেকে বিরত থাকতে বলে বলেছে মুম্বাইয়ের এক দেওয়ানি আদালত।

টুইটার, ফেইসবুকে একাধিক পোস্ট ও মন্তব্যে আরবাজের নাম সুশান্ত ও দিশার রহস্য মৃত্যুর সঙ্গে জড়িয়ে অভিনেতা ও তার পরিবারের মানহানি করছে। এমনই দাবি তুলে গত সপ্তাহে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অভিনেতা-নির্মাতা। পাশাপাশি সুশান্ত-দিশার মামলায় আরবাজের নাম জড়িয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনোরকম মন্তব্য প্রকাশ বন্ধ ও ইতিমধ্যে করা মন্তব্য তুলে নেওয়ার আবেদন জানান।

মামলায় সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক, টুইটার, গুগল, ইউটিউবেও পার্টি হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন আরবাজ খান। কারণ সব প্ল্যাটফর্মেই সুশান্ত ও দিশার মৃত্যু সংক্রান্ত কনটেন্ট রয়েছে। যেখানে খান পরিবারের নামে অপবাদ দেওয়া হচ্ছে।

এর আগে সুশান্তর মৃত্যুতে কয়েকজন বলিউড সেলিব্রিটিকে জড়িয়ে মামলা হয় বিহারে। সেখানে সালমান খানকে আসামি করা হয়। তবে আদালত মামলাটি গ্রাহ্য করেনি।

১৪ জুন সুশান্তর মৃত্যুর পর থেকেই একাধিক তত্ত্ব সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠে আসে। যার মধ্যে অন্যতম দিশার সঙ্গে সুশান্তর মৃত্যুর যোগ। সুশান্তর মৃত্যুর দিন কয়েক আগে ৮ জুনের রাতে রহস্যজনক মৃত্যু হয় দিশার। তিনি বহুতল ভবন থেকে ঝাঁপ দেন। দুজনের মৃত্যুর সঙ্গেই নাকি যোগ রয়েছে আরবাজের এমনটা দাবি করা হয় বিভোর আনন্দ ও সাক্ষী ভান্ডারির বেশ পোস্টে। সেই ‘ভুয়া দাবি’র বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হন আরবাজ।

সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কগুলোর তরফে তাদের আইনজীবীরা আদালতে জানান, এই মামলায় অযথা তাদের নাম জড়ানো হচ্ছে ও পক্ষ হিসেবে তুলে ধরা হচ্ছে। এই মামলার বিস্তারিত জবাব দিতে সময় প্রার্থনা করেন তারা। আদালত ২ সপ্তাহ সময় দিয়েছে তাদের।

এ ছাড়া আগামী শুনানির আগে পর্যন্ত বিভোর, সাক্ষী-সহ বাকি নেটিজেনদের খান পরিবারের নাম জড়িয়ে কোনো মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেয় আদালত। সোশ্যাল মিডিয়াকেও এই ধরনের মন্তব্য তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here