ক্যারিয়ারের জন্য বিয়ে ভেঙে ছিলেন তিনি

0
20

মল্লিকা শেরাওয়াতের সঙ্গে ইন্ডাস্ট্রিতে  ‘বোল্ড’ শব্দ কার্যত সমার্থক। প্রথম ছবিতেই চুম্বনদৃশ্যে ঝড় তুলেছিলেন তিনি।

জানেন কি ২০০০ সালে বিয়ে করেন মল্লিকা এবং কর্ণ সিং গিল। কিন্তু এক বছরের মধ্যেই বিবাহিত জীবনে দমবন্ধ মনে হতে থাকে তার।

২০০১ সালে বিবাহবিচ্ছেদের পরে মডেলিংয়ে নতুন ক্যারিয়ার শুরু করেন এই আবেদনময়ী তারকা। বিজ্ঞাপনে অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খানের সঙ্গে অভিনয় করে দ্রুত জনপ্রিয়তার প্রথম সারিতে চলে আসেন। এরপর  বলিউডে অভিনয় করবেন ঠিক করেন তিনি। কিন্তু প্রথমেই ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ এল না।

পরিবর্তে তিনি মিউজিক ভিডিওয় অভিনয় করলেন। ২০০২ সালে তাকে ছোট ভূমিকায় দেখা গেল ‘জিনা সির্ফ মেরে লিয়ে’ ছবিতে। পরের বছর সুযোগ পেলেন বি গ্রেডের ছবি ‘খোয়াইশ’ ছবিতে। এ ছবিতে মল্লিকার নায়ক ছিলেন হিমাংশু মালিক। এই ছবিতে মল্লিকার মোট সতেরোটি চুম্বনদৃশ্য ছিল। এক ফিল্মে এতগুলি চুম্বনদৃশ্যের রেকর্ড অন্য কোনো বলি নায়িকার নেই। ২০০৪-এ মুক্তি পেল ‘মার্ডার’। মহেশ ভট্টের প্রযোজনায় অনুরাগ বসুর পরিচালনায় এই ছবির সুবাদে সেই জনপ্রিয়তা ও পরিচয় পেলেন মল্লিকা, যার জন্য তিনি বিয়ে ভেঙে বলিউডমুখী হয়েছিলেন। প্রথম ছবির পর থেকেই ইন্ডাস্ট্রিতে মল্লিকার নামের পাশে বসে যায় ‘দুঃসাহসী’ পরিচয়।

তিনি অফার পেতে থাকেন হলিউড থেকেও। জ্যাকি চানের ছবি ‘দ্য মিথ’-এ তিনি রাজকুমারির ভূমিকায় অভিনয় করেন। ‘মার্ডার’ ছাড়াও মল্লিকার ক্যারিয়ারের উল্লেখযোগ্য হিন্দি ছবি হল ‘প্যায়ার কে সাইড এফেক্টস’, ‘ওয়েলকাম’ এবং ‘ডরনা জরুরি হ্যায়’। তার বেলি ডান্স দর্শকদের মন জয় করেছিল ‘গুরু’ ছবিতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here