‘ওয়ান এন্ড অনলি’তে অপূর্ব’র সঙ্গে জাসিনতা স্কোয়ারেস

0
15

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের মাঝে বিশ্ব এখন হাতের মুঠোয়। এতে ভিন্ন দেশের ভিন্ন মানুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া এখন আর দূরহ কিছু নয়। তেমনি গল্প নিয়ে বাংলাদেশের অপূর্ব এবং অস্ট্রেলিয়ার জাসিনতা স্কোয়ারেস জড়িয়ে পড়েন সম্পর্কে।

গল্পে দেখা যায়- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশি অরণ্য এবং অষ্ট্রেলিয়ান লানার পরিচয় হলে- তাদের বন্ধুত্ব ভালোবাসায় রূপ নেয়। ভালোবাসা ছাড়াও দুজনের মাঝে নিজ নিজ দেশ, ভাষা ও সংস্কৃতির আদান-প্রদান ক্রমেই মজবুত হয়ে উঠে। লানার বান্ধবী চেলসি তাকে বোঝায় এমন ছেলেরা অস্ট্রেলিয়ার  মতো উন্নত দেশে অভিবাসী হবার জন্যই এখানকার মেয়েদের  সঙ্গে সম্পর্ক এবং বিবাহ করে। লানার বিশ্বাস হয় না। বরং সে অরণ্যর সঙ্গে দেখা করতে বাংলাদেশে আসার সিন্ধান্ত নেয়।

অন্যদিকে বাংলাদেশে রওনা দেবার আগমূহুর্তে লানা’র প্রতিবেশী ফারজানা ও প্রমাণ করে যে অরণ্য অস্ট্রেয়ালার সিটিজেন হবার লোভেই লানা’র সঙ্গে ভালোবাসার অভিনয় করছে। এবার লানা ভেঙ্গে পড়ে। সকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেয়। অরণ্যর সঙ্গে যাবতীয় যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। আর এদিকে অরণ্য নির্দিষ্ট সময়ে এয়ারপোর্টে এসে অপেক্ষা করতে থাকে লানার জন্য। কিন্তু লানা আসেনা।

অরণ্য লানার সঙ্গে কোনোভাবে যোগাযোগে ব্যর্থ হয়ে প্রতিদিন লানার জন্য ফুলহাতে এয়ারপোর্টে নির্দিষ্ট ফ্লাইটের অপেক্ষায় দাড়িয়ে থাকে। মানুষ তাকে পাগল ভাবা শুরু করে এবং এই নিয়ে স্যোসাল মিডিয়াসহ দেশের গন মাধ্যমেও খবর প্রচার শুরু হয়।

কেটে যায় দুই বছর। ঘটনাচক্রে  লানার সঙ্গে অরণ্যর বন্ধু রুশোর দেখা হলে লানা বুঝতে পারে ফারজানা তাকে ভুল বুঝিয়েছিল। অরণ্য তার পথ চেয়ে এখনো অপেক্ষায় আছে। এটা জানতে পেরে লানা অরণ্যর সঙ্গে যোগাযোগ করে। দুজনের ভালোবাসা নতুন পথ খুঁজে পায়। এভাবেই একাধিক বাঁকচক্রে ভরপুর নাটক ওয়ান এন্ড অনলি আরটিভিতে দেখবেন ঈদের দিন রাত ৯টায়। সৈয়দ জিয়া উদ্দিন এর রচনা এবং রহমতুল্লাহ্ তুহিনের পরিচালনায় নাটকটিতে আরও অভিনয় করেছেন, সোফি ব্রাওয়ার্র মরিসন (অস্ট্রেলিয়া), সালমান আরিফ, সেঁজুতি ইসলাম, নন্দ চক্রবর্তী ছোটন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here