আসিফের ১১ টি পরামর্শ

0
37

মাত্র তিনমাসের ধাক্কাই নিতে পারেনি মিউজিক ইন্ডাষ্ট্রি, সামনে তো কঠিনতর সমস্যা আসছেই। তারপরও উপযাচক হয়ে শেষবারের মতো একটা পরামর্শ দিচ্ছি। এভাবেই নিজের ফেসবুকে ১১ টি পরামর্শ দিয়েছেন জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী আসিফ আকবর। নিচে পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হলো।

১/ অবিলম্বে গীতিকার সুরকার কণ্ঠশিল্পীদের সমন্বয়ে কপিরাইট সোসাইটি গঠন করতে হবে।

২/ এই সোসাইটির শুরু থেকেই রাজনৈতিক লেজুড়বৃত্তি মুক্ত রাখতে হবে।

৩/ সময় দিতে পারবে এমন গ্রহনযোগ্য সঙ্গীত ব্যক্তিত্বদের সমন্বয়ে নিরাপত্তা মেনিফেস্টো তৈরী করতে হবে।

৪/ যন্ত্রসঙ্গীত শিল্পীদের নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার দিয়ে স্বার্থ সংরক্ষন প্ল্যান করতে হবে।

৫/ কপিরাইট অফিস কর্তৃক গীতিকার সুরকার শিল্পী এবং প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের রেভিনিউ শেয়ারিং নির্ধারন করতে হবে।

৬/ কপিরাইট আইন সংশোধন করে চলচ্চিত্রের গানের ওপর থেকে প্রযোজকের একচ্ছত্র অধিকার খর্ব করতে হবে।

৭/ সরকারি বেসরকারি রেডিও এবং টেলিভিশন চ্যানেলে যে কোন পন্থায় প্রচারিত গানের রয়্যালিটি নিশ্চিত করতে হবে।

৮/ সিনিয়রিটি ও দক্ষতা বিবেচনায় গ্রেডেশন সিস্টেম এবং আইডি কার্ড চালু করতে হবে।

৯/ প্রত্যেকটি পেশাদার শো থেকে কপিরাইট সোসাইটির জন্য একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ পার্সেন্টেজ কাটতে হবে যেন গীতিকার সুরকাররা সেখান থেকে তাদের সৃষ্টির ন্যায্য হিস্যা পায়।

১০/ মিউজিকের প্রত্যেক অংশের হিস্যাদারকে অবশ্যই আয়কর ফাইল খুলতে হবে।

১১/ কারো জন্য সরকারি সাহায্যের প্রয়োজন হলে তাকে কপিরাইট সোসাইটির নিবন্ধিত হতে হবে।

উপরোক্ত কর্মযজ্ঞ চালাতে ভারতীয় কপিরাইট এ্যাক্ট এবং ভারতীয় কপিরাইট সোসাইটির পলিসি ফলো করা সর্বোত্তম উপমহাদেশীয় কনসেপ্টে। ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ক্ষেত্রে চট্টগ্রামের মিউজিশিয়ানদের উদাহরন সামনে রয়েছে। আমার দীর্ঘদিনের পর্যবেক্ষন তুলে ধরলাম। অবিলম্বে এই এগারোটা পয়েন্টে কাজ করতে না পারলে অভাবের সঙ্গে সংসার ভাঙ্গা শুরু হবে পাইকারী হারে। নীরব দূর্ভিক্ষে আছে সঙ্গীতাঙ্গন, অতীতে তৈলপ্রাপ্ত স্বচ্ছলরা আপনাদের ফোন ধরবেনা, তারা করাপ্টেড পলিটিয়ানদের মত বিদেশে সেকেন্ড হোম তৈরী করে রেখেছে। সাহায্যের চিন্তা না করে অধিকার আদায়ে এখন সচেষ্ট হউন। ভিখারী নয় যোদ্ধা হউন, নিজের অধিকার ছিনিয়ে আনুন। অন্যথায় এই খাত থেকে খাওয়ার জন্য ভবিষ্যতে আর কেউ মুড়িও অফার করবেনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here