আজ কিংবদন্তির চলে যাওয়ার দিন

আজ কিংবদন্তির চলে যাওয়ার দিন। আজ তাঁকে হারানোর দিন। আজ ব্যান্ড লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চুকে হারিয়ে ফেলার সেই দিন। ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর সকালে সবাইকে কাঁদিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নেন তিনি। সেই অকাল বিদায়ের আজ পূর্ণ হলো এক বছর।

১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম কিংবদন্তি ব্যান্ড তারকা ও গিটার লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চুর। ছোটবেলা থেকেই গিটারের প্রেমে পড়েন তিনি। কলেজে জীবনে বন্ধুদের নিয়ে ”গোল্ডেন বয়েজ” নামে একটা ব্যান্ডদল গড়ে তোলেন আইয়ুব বাচ্চু, পরে এর নাম পাল্টে রাখা হয় ”আগলি বয়েজ”। পরবর্তীতে আইয়ুব বাচ্চু ব্যান্ডদল ”ফিলিংস”র সঙ্গে যুক্ত হন। এরপর ১৯৮০ সালে তিনি যোগ দেন দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ড ”সোলস” এ। এই ব্যান্ডের লিড গিটারিস্ট হিসেবে টানা ১০ বছর যুক্ত ছিলেন তিনি । ১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল গড়ে তোলেন তাঁর নতুন ব্যান্ড ”এলআরবি”।

মূলত রক ঘরানার কণ্ঠের অধিকারী হলেও আধুনিক গান, ক্লাসিকাল সংগীত এবং লোকগীতি দিয়েও শ্রোতাদের মুগ্ধ করেছেন তিনি। আইয়ূব বাচ্চুর প্রথম প্রকাশিত একক অ্যালবাম ”রক্তগোলাপ”। আইয়ূব বাচ্চুর সফলতার শুরু দ্বিতীয় অ্যালবাম ”ময়না”র মাধ্যমে। তিনি বেশ কিছু বাংলা ছবিতে প্লে-ব্যাকও করেছেন। এছাড়া অসংখ্য অ্যালবামেও কণ্ঠ দিয়েছেন আইয়ুব বাচ্চু। এর মধ্যে ময়না, কষ্ট, প্রেম তুমি কষ্ট, দুটি মন, সময়, একা, পথের গান, ভাটির টানে মাটির গানে, জীবন, সাউন্ড অব, সাইলেন্স, রিমঝিম বৃষ্টি অ্যালবামগুলো উল্লেখযোগ্য।

আইয়ূব বাচ্চুর গাওয়া জনপ্রিয় অসংখ্য গানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য – সেই তুমি কেন অচেনা হলে, রূপালি গিটার, রাত জাগা পাখি হয়ে, কষ্ট পেতে ভালবাসি, মাধবী, ফেরারি মন, এখন অনেক রাত, ঘুমন্ত শহরে, বার মাস, হাসতে দেখ, এক আকাশের তারা, উড়াল দেব আকাশে।

সঙ্গীতের আঙিনায় আইয়ুব বাচ্চু একাধারে গীতিকার, সুরকার, পরিচালক এবং গায়ক হিসেবে জনপ্রিয়। আজ তাঁর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রিয়জনেরা নানা আয়োজনে স্মরণ করছেন তাকে।

আজ শুক্রবার বাদ আসর মগবাজার কাজী অফিসের গলি মসজিদে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করছে তাঁর পরিবার। এছাড়া চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর কবর জিয়ারত করবেন তার প্রিয়জনেরা। সেখানে দোয়ার মাহফিলের আয়োজন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী চন্দনা। চন্দনা জানালেন, মেয়ে ফাইরুজ সাফরাকে নিয়ে তিনি চট্টগ্রামেই থাকবেন ১৮ অক্টোবর। পরিবারের আয়োজন ছাড়াও তার শুভাকাঙ্ক্ষী ও ভক্তরাও বিভিন্ন স্থানে দোয়ার আয়োজন করেছেন। চ্যানেল আই, নাগরিক টেলিভিশনসহ কয়েকটি টিভি চ্যানেলও আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here