বিদায় টেলি সামাদ

0
27

বাংলাদেশের সিনেমার জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা টেলি সামাদ মারা গেছেন। ৬ এপ্রিল বেলা দেড়টায় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি দুই স্ত্রী রেখা সামাদ, নিগার সুলতানা, চার সন্তানের মধ্যে দুই মেয়ে সোহেলা সামাদ কাকলী, সায়মা সামাদ ও দুই ছেলে সুমন এবং দিগন্ত সামাদকে রেখে গেছেন। তিনি হৃদরোগ, ব্লাড ক্যানসার ও বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন।

টেলি সামাদের জন্ম ১৯৪৫ সালের ৮ জানুয়ারি, মুন্সীগঞ্জের নয়াগাঁও এলাকায়। সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডলে বেড়ে ওঠা তার বড় ভাই বিখ্যাত চারুশিল্পী আব্দুল হাইয়ের পদাঙ্ক অনুসরণ করে তিনি পড়াশোনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায়। সংগীতেও রয়েছে এই গুণী অভিনেতার পারদর্শিতা।

‘মনা পাগলা’ ছবির সংগীত পরিচালনা করেছেন তিনি। ১৯৭৩ সালে ‘কার বউ’ দিয়ে তার চলচ্চিত্রে পা রাখা। তবে তিনি দর্শকদের কাছে যে ছবিটির মাধ্যমে সর্বাধিক জনপ্রিয়তা পান সেটি হলো ‘পায়ে চলার পথ’। এরপর অসংখ্য ছবিতে অভিনয় করেছেন। অভিনয়ের বাইরে ৫০টির বেশি চলচ্চিত্রে তিনি গানও গেয়েছেন। চার দশকে ৬০০ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন এ অভিনেতা।

টেলি সামাদ অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে নয়ন মণি, মাটির ঘর, দিলদার আলী, অশিক্ষিত, ফকির মজনু শাহ, মধুমিতা, মিন্টু আমার নাম, নদের চাঁদ, মাটির ঘর, দিন যায় কথা থাকে, নওজোয়ান, ভাত দে, সখিনার যুদ্ধ, সোহাগ, পৃথিবী, কথা দিলাম, শেষ উত্তর, হারানো মানিক, চন্দ্রলেখা, লাভ ইন সিঙ্গাপুর, গোলাপী এখন ট্রেনে, মনা পাগলা, সুজন সখী, লাইলী মজনু ইত্যাদি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here