চলে গেলেন সাইদুল আনাম টুটুল

গুণী নির্মাতা সাইদুল আনাম টুটুল আর নেই। রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ ল্যাব এইডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। এর আগে মঙ্গলবার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুরে তার মৃত্যুর গুজব ছড়ায়। পরে জানা যায়, আজ সকালে তিনি অসুস্থ অবস্থায় হার্ট অ্যাটাক করেন। এরপর চিকিৎসকরা ৩টা ১০ মিনিটে সাইদুল আনাম টুটুলকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মৃত্যুতে সংস্কৃতি অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

গত ১৫ ডিসেম্বর শনিবার দিবাগত রাত ৩টায় সাইদুল আনাম টুটুল হার্ট অ্যাটাক করেন। পরে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ধানমন্ডির ল্যাবএইড হাসপাতালে। শারীরিক অবস্থা খারাপ দেখে ল্যাবএইডের ডাক্তার মাহবুবুর রহমান তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখার পরামর্শ দেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন তার ফুসফুসে পানি জমেছে। নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিলো। তার কিডনিতেও সমস্যা ছিলো। গতকাল সোমবার রাতে তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয়। কিন্তু আজ মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) সকালে তার হার্ট অ্যাটাক হলে অবস্থা আরও গুরুতর হয়ে পড়ে। আবারও তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়। কিন্তু সব চেষ্টাকে ব্যর্থ করে দিয়ে পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে পরপারে পাড়ি জমান এই নির্মাতা।

উল্লেখ্য,সাইদুল আনাম টুটুল চলচ্চিত্র সম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৭৯ সালে শেখ নিয়ামত আলী পরিচালিত ”সূর্য দীঘল বাড়ী” চলচ্চিত্রের সম্পাদনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। এছাড়াও সালাউদ্দিন জাকির ”ঘুড্ডি”, শেখ নিয়ামত আলীর ”দহন”, মোরশেদুল ইসলামের ”দীপু নাম্বার টু” ও ”দুখাই” ছায়াছবির সম্পাদনাও তিনি করেন।

তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ”আধিয়ার” ২০০৩ সালে মুক্তি পায়। ১৯৪৬-৪৭ সালের বাংলার কৃষক চাষীদের তেভাগা আন্দোলনকে কেন্দ্র করে নির্মিত চলচ্চিত্রটি সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করে। এরপর তিনি নাটক নির্মাণে মন দেন। ২০০৯ সালে তার নির্মিত তিনটি নাটক ”বখাটে”, ”আপন পর” ও ”নিশিকাব্য” জনপ্রিয়তা লাভ করে। সাইকেল চালিয়ে জীবিকা অর্জন করে এমন একটি পরিবারের গল্প নিয়ে ২০১১ সালে নির্মাণ করেন খণ্ড নাটক ”হেলিকপ্টার”। এতে সাইকেল চালকের ভুমিকায় অভিনয় করেন আজিজুল হাকিম। এরপর তার নির্মিত ”৫২ গলির এক গলি”,”দায় মার সন্তানেরা”,”অপরাজিতা”, ”মৃতের প্রত্যাবর্তন”, ”শিউলিমালা”, ”কুটে কাহার”, ”গোবরা চোর” নাটকগুলো বেশ দর্শকপ্রিয়তা পায়। সর্বশেষ তিনি শুরু করেছিলেন তার দ্বিতীয় ছবি ”কালবেলা’র কাজ। এর মাধ্যমে দীর্ঘ ১৫ বছর পর চলচ্চিত্রের পরিচালনায় ফিরেছিলেন এই নির্মাতা। কিন্তু, শেষ ছবির কাজ শেষ না করেইনা ফেরার দেশে চলে গেলেন সাইদুল আনাম টুটুল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here