ঈদে জিতের ‘সুলতান’র মুক্তি অনিশ্চিত

0
107

সম্প্রতি বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া ও কলকাতার জিৎ ফিল্ম ওয়ার্কসের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ছবি ‘সুলতান-দ্য সেভিয়র’ নিয়েও কথার বৃষ্টি ঝরছে অবিরাম। গত ২৪ এপ্রিল বাংলাদেশের প্রিভিউ কমিটি থেকে ‘সুলতান’ নির্মাণের আবেদন করে জাজ মাল্টিমিডিয়া। এরপর ছবিটি নির্মাণের অনুমতি পায় জাজ।

অথচ ২৮ এপ্রিল জাজ মাল্টিমিডিয়া তাদের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করে এই ছবির গান। শুধু তাই নয়, জিৎ ফিল্ম ওয়ার্কসের পক্ষ থেকে গ্রাসরুট এন্টারটেইনমেন্টের ইউটিউব চ্যানেল থেকেও ‘মাশাআল্লাহ’ শিরোনামে গানটি প্রকাশ করে। রাজা চন্দের পরিচালনায় ছবিটি শুটিংয়ের অনুমতির আগেই শুটিং শেষ করা হয়েছে।

সম্প্রতি জিৎ তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ-এ এই ছবিটির শুটিং শেষ হওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এরপর থেকেই জল ঘোলা হতে থাকে। সমালোচনার বানে ভাসতে থাকে আরেকটি যৌথ প্রতারণার ছবির নাম। অনুমতির আগেই ছবির শুটিং শেষ করা মানে যৌথ প্রযোজনার নিয়ম লঙ্ঘন করা। সেটাই করেছে জাজ মাল্টিমিডিয়া ও জিৎ ফিল্মস ওয়ার্কস। এমনটি বলেছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার।

হাজারো প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে অবশেষে যৌথ প্রযোজনা থেকে নিজেদের নামও সরিয়ে নিয়েছেন জাজ মাল্টিমিডিয়া। হ্যাঁ, জাজ মাল্টিমিডিয়া আর ‘সুলতান-দ্য সোভিয়ার’ ছবিটি প্রযোজনা করছেন না। এমন খবর নিশ্চিত করেছেন জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আব্দুল আজিজ। তবে ইতোমধ্যেই জিৎ এবং বিদ্যা সিনহা মিম অভিনীত এই ছবির শুটিং শেষ হয়েছে।

এখন শুধুমাত্র ঘোষণা দিয়ে যৌথ প্রযোজনা থেকে নিজেদের নাম সরিয়ে নিলেই কি হবে? কারণ ইতোমধ্যেই টাকা লগ্নি করা হয়ে গেছে। এ সম্পর্কে জাজের কর্ণধার আবদুল আজিজ বলেন, ‘আমরা আবেদন করেছি মার্চ মাসে এখনও এটার কোনো ক্লিয়ারেন্স পাইনি মন্ত্রণালয় থেকে। শুধু প্রিভিউ কমিটি একটা পাস দিয়েছে গত ২৪ এপ্রিল। কিন্তু মন্ত্রণালয়ের চিঠি ছাড়া আমরা কাজ শুরু করতে পারি না। তাই আর্টিস্টের সিডিউল নিয়ে শুটিং করে, আমরা ঈদে ছবি আনতে পারবো না। তাই আমরা ছবি বাদ দিয়ে দিয়েছি।’

কিন্তু ছবির শুটিং শেষ হয়েছে এটা ইতোমধ্যেই প্রমাণিত এই প্রশ্নের উত্তরে আবদুল আজিজ বলেন, ‘আমরা আবেদন করেছি মার্চ মাসে। এতদিন যদি শুটিংয়ের অনুমতির জন্য সময় লাগে তাহলে আমরা কি করবো। তাই ছবির কাজ শেষ হয়ে গেছে।’

যৌথ প্রযোজনা থেকে এই ছবি থেকে নিজেদের নাম সরিয়ে নিলেও সাফটা চুক্তিকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করবে জাজ মাল্টিমিডিয়া- এমনটি শোনা যাচ্ছে চলচ্চিত্র পাড়ায়। ছবিটির প্রযোজকের খাতা থেকে নিজেদের নাম কেটে ফেললেও সাফটা চুক্তির মাধ্যমে বাংলাদেশে ছবিটি মুক্তির জন্য ভেতরে ভেতরে করাত চালাবেন জাজ মাল্টিমিডিয়া। তার মানে প্রত্যক্ষভাবে জাজ না থাকলেও পরোক্ষভাবে জাজ থাকছেন এই ছবির সঙ্গে।

এমন কথার বিপরীতে আবদুল আজিজ বলেন, ‘এ ছবিটি আমদানি করার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেইনি।’

এমন অবস্থায় ঈদে বাংলাদেশে এই ভারতীয় ছবিটির মুক্তি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here