আগামীকাল জোভান-ভাবনার ”সাইন ইন”

সময়ের দুই আলোচিত অভিনেতা-অভিনেত্রী জোভান এবং ভাবনাকে জুটি হিসেবে দেখা যাবে নাটকে। অনিমেষ আইচের রচনা ও চয়নিকা চৌধুরীর পরিচালনায় নির্মিত ”সাইন ইন” নাটকে দেখা যাবে এই জুটি। প্রযোজনা সংস্থা পথিক ও ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট এর প্রযোজনায় নির্মিত এই নাটকটির নির্বাহী প্রযোজক তুহিন বড়ুয়া ও কাজী রিটন।

নাটকটির গল্পে দেখা যাবে ,শাসা (জোভান) খুবই কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট ফ্রিক। চব্বিশ ঘন্টায় সে কোন না কোন গেজেট নিয়ে মেতে থাকে। আইপ্যাড, আইফোন ও ল্যাপটপ ছাড়া তাকে এক মিনিটের জন্যও দেখা যায় না। অনলাইন চ্যাটিংয়ের মাধ্যমে তার সাথে উর্মিলা (ভাবনা) নামের এক মেয়ের সাথে রিলেশন হয়। তারা ভিডিও কলে কথা বলে, মেসেজ চালাচালি করে। একদিন সরাসরি দেখা করে। দুজনার দুজনকে ভাল লেগে যায়। দুজনই গেজেট ফ্রিক এবং প্রযুক্তি ভালবাসে। এটাই তাদের রিলেশনের অন্যতম কমন ইস্যু। এদিকে দুই পরিবারের বাবা মা-ই তাদের এই প্রযুক্তি প্রীতিকে ভাল চোখে দেখে না। শাসা আর উর্মিলার রিলেশন গাঢ় হতে থাকে। এসময়ই একদিন উর্মিলা ফোন পাশে রেখে কথা বলতে বলতে ইলেকট্রিক শকে মারা যায়। পরদিন সবাই বিষয়টা জানে।

এ ঘটনায় মানসিকভাবে সবচাইতে বিপর্যস্ত হয় শাসা। সে রাত দিন মিস করতে থাকে উর্মিলাকে। সে একটু পরপর মেসেজ করে ছবি পাঠায় উর্মিলাকে। এরপর হঠাৎ একদিন উর্মিলার এ্যাকাউন্ট থেকে রিপ্লাই আসে। শাসা অবাক। এরপর একদিন উর্মিলার এ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিওকল আসে। শাসা নিজে উর্মিলাকে কবরে শুইয়ে এসেছে। কি করে এটা সম্ভব? ব্যাপারটা শাসা তার সবচেয়ে ক্লোজ ফ্রেন্ড রূহানকে জানায়। অবশ্য মানুষজন যখন সামনে আসে তখন চ্যাটিং ও ভিডিওকলে আসে না উর্মিলা। কিন্তু বাবা-মা এবং বন্ধুরাও উর্মিলার উপস্থিতির সত্যতা টের পায়। ব্যাপারটা ক্রমেই জটিল থেকে জটিলতর হতে থাকে। শাসাকে সবধরনের কমিউনিকেশন থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয়। শাসা মানষিকভাবে অসুস্থ হতে থাকে। একটা গভীর সংকটাপন্ন অবস্থা তৈরী হয়। সাইক্রিয়াটিস্ট এবং সাইবার এক্সপার্টরা বিষয়টা নিয়ে ভাবিত হয়। পত্রিকায় এই বিষয়টা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। পূনরায় শাসাকে প্রযুক্তি ব্যবহারের সুযোগ দেয়া হয়। কিন্তু উর্মিলা আর কখনো উপস্থিত হয় না। শাসা বারংবার উর্মিলাকে টেক্সট মেসেজ করে, তুমি এসো, আমি অনলাইন-এ আছি। তারপর কি হয় ? তা জানতে দেখতে হবে নাটকটি।

নাটকটিতে জোভান ও ভাবনা ছাড়াও আরও অভিনয় করেছেন শেলী আহসান, নরেশ ভূঁইয়া। মিলি বাসার প্রমুখ। আগামীকাল ৬ এপ্রিল রাত ৯ টায় নাটকটি প্রচারিত হবে বেসরকারী টিভি চ্যানেল এসএ টিভিতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here