অনুষ্ঠিত হলো ”স্টার সিনেপ্লেক্স-ব্র্যাক ইউ শর্টফিল্ম কনটেস্ট”র গ্র্যান্ড ফিনালে

অনুষ্ঠিত হলো ”স্টার সিনেপ্লেক্স-ব্র্যাক ইউ শর্টফিল্ম কনটেস্ট” এর গ্র্যান্ড ফিনালে। আজ বৃহস্পতিবার এই গ্র্যান্ড ফিনালেতে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন জুরি বোর্ডের সদস্যগণ ও স্টারসিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান। এই প্রতিযোগীতায় সেরা তিন বিজয়ীর হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়েছে। ‌‘তমসা’ শিরোনামের চলচ্চিত্র নির্মাণ করে সেরা নির্মাতার পুরস্কার জিতেছেন সাউথ ইউনিভার্সিটি ছাত্র দ্বিপ রায়। দ্বিতীয় পুরস্কার জিতেছেন যৌথ ভাবে দুইজন। ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র তাহমিদ রাকিব অতুল। তার চলচ্চিত্রের নাম ছিল ‘খাঁচা’। আর আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর ছাত্র তানজিল সুলতান খান তূর্য। তার নির্মিত চলচ্চিত্রটির নাম ‘দি মার্ডারার’। তৃতীয় হয়েছেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী সৈয়দ সাফকাত হোসেইন গালিব। তার চলচ্চিত্রটির নাম ‘সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরন’।

সেরা তিন নির্মাতা পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয়েছে যথাক্রমে ৫০ হাজার, ৩০ হাজার ও ২০ হাজার টাকা। সেই সাথে বিজয়ীরা আরও পেয়েছেন চলচ্চিত্র নির্মাণের বাস্তব অভিজ্ঞতা গ্রহণের সুযোগ, চলচ্চিত্রবিষয়ক আন্তর্জাতিক কর্মশালায় অংশগ্রহণের সুযোগ এবং আকর্ষণীয় গিফট হ্যাম্পার।

বাংলাদেশে মাদকের বিস্তার এবং প্রতিকারের ওপর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নির্মিত ৩ মিনিটের শর্ট ফিল্ম নিয়ে আয়োজন করা হয় এ প্রতিযোগিতা। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১০ মার্চ পর্যন্ত নির্মাতারা তাদের চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতার নির্দিষ্ট ফেসবুক পেইজে আপলোড করেন। এর মধ্য থেকে জুরি বোর্ডের রায় এবং ফেসবুক ভোটিংয়ের ভিত্তিতে সেরা তিনটি চলচ্চিত্র নির্বাচন করা হয়। জুরি বোর্ডের ৯০ ভাগ এবং ফেসবুক লাইকের পরিমান অনুযায়ী ১০ ভাগ নম্বরের ভিত্তিতে ফলাফল নির্ধারণ করা হয়।

এ প্রতিযোগিতায় জুরি বোর্ডের সদস্য হিসেবে ছিলেন অভিনেত্রী সূবর্ণা মুস্তাফা,আফসানা মিমি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা গিয়াসউদ্দিন সেলিম। এই প্রতিযোগিতার সার্বিক সহযোগীতা ও পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে ‘রেক্সোনা’। রেক্সোনা নিবেদিত এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি- বাংলাদেশ, ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি- বাংলাদেশ, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস, আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস এবং ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য যে, দেশের চলচ্চিত্র শিল্পকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে সৃষ্টিশীল তারুণ্যকে উৎসাহিত করতে স্টার সিনেপ্লেক্স এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। এ নিয়ে তৃতীয়বার এমন আয়োজন করেছে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স প্রেক্ষাগৃহ স্টার সিনেপ্লেক্স।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here