ক্যারিয়ারে ইতি টানছেন মিশা সওদাগর

mishafffffffffff

নিজের দীর্ঘ চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দেশীয় ছবির জনপ্রিয় খল অভিনেতা মিশা সওদাগর। তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর অভিনয় করবেন না। একেবারেই ব্যক্তিগত কারণেই এমনটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে Binodon24.com কে জানালেন মিশা সওদাগর। এ প্রসঙ্গে Binodon24.com কে মিশা বললেন,”আল্লাহর রহমতে প্রায় ৩০ বছর ধরে আমি কাজ করছি। এই চলচ্চিত্র জগত আমাকে দুই হাত ভরে নাম-যশ,সাফল্য সব দিয়েছে। আমি যতদিন বাঁচবো এই চলচ্চিত্র পরিবারের মানুষ হিসেবেই বেঁচে থাকবো। অনেকেই অনেককিছু ভাবতে পারেন আমার এই সিদ্ধান্ত নিয়ে। কিন্তু আমি সবাইকেই পরিষ্কার করে জানাতে চাই এটা আমার একক সিদ্ধান্ত। আমি চাই আমার জায়গাটাতেও নতুন নতুন অভিনেতা আসুক। একজন সিনিয়র অভিনেতা হিসেবে নিজের দায়িত্ববোধ থেকেই এই চাওয়া আমার। তাছাড়া এতদিন কাজের জন্য নিজের পরিবারকেও ঠিকমত সময় দিতে পারিনি। আমার বড় ছেলে সম্প্রতি আমেরিকা চলে গেছে পড়াশোনার জন্য। আর ছোট ছেলে ক্লাস ফোরে পড়ছে। তো বাসায় আমি,আমার স্ত্রী আর ছোট ছেলেটা ছাড়া কেউ নেই। আমি চাই এখন তাদের একটু সময় দিতে। এই আর কি। এর বাইরে আমি যেহেতু শিল্পী সমিতির সভাপতি,সেখানেও আমার দায়িত্ব রয়েছে। সংগঠনকেও আরও বেশী সময় দিতে চাই। সবমিলিয়ে আসলে এবার একটু অন্যরকমভাবে জীবনটাকে দেখতে চাই।” কথা প্রসঙ্গে মিশা আরও বললেন,অভিনয় জীবন থেকে অবসর নেবার পর তিনি ব্যবসায় মনোযোগ দিতে চান। উল্লেখ্য,দেশীয় চলচ্চিত্রের দাপুটে খলনায়ক মিশা সওদাগরের চলচ্চিত্র জগতে আগমন এফডিসির ”নতুন মুখের সন্ধানে” কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে ১৯৮৬ সালে। ক্যারিয়ারের শুরুটা তার হয়েছিল একজন নায়ক হিসেবেই। ১৯৯০ সালে প্রথম ছটকু আহমেদ পরিচালিত ”চেতনা” ছবিতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেন তিনি। এরপর ”অমরসঙ্গী” নামের আরও একটি  ছবিতেও তাকে নায়কের ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল। কিন্তু নায়ক হিসেবে এই দুটি ছবিতে তেমন সাড়া পাননি তিনি। পরবর্তীতে তমিজ উদ্দিন রিজভীর ”আশা ভালোবাসা” ছবিতে প্রথম খলনায়ক হিসেবে দেখা যায় তাকে। খলনায়ক হিসেবে অভিনয় শুরু করার পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৯০০ ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। এছাড়া মিশা সওদাগর বর্তমানে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestlinkedin